|

বিজ্ঞান অনুসন্ধানী পাঠ ৭ম শ্রেণি অধ্যায় ১৪ প্রশ্ন ও উত্তর

বিজ্ঞান অনুসন্ধানী পাঠ ৭ম শ্রেণি অধ্যায় ১৪: আমরা জানি, পৃথিবীর সবচেয়ে বাইরের বা উপরের পৃষ্ঠ ভূ-ত্বক নামে পরিচিত। এ ভূ-ত্বক নানা প্রকার শিলা দ্বারা গঠিত। ভূ-ত্বকে যেসব শিলা পাওয়া যায় সেগুলোকে প্রধান তিনটি ভাগে ভাগ করা যায়। এগুলো হলো- আগ্নেয় শিলা, পাললিক শিলা এবং রূপান্তরিত শিলা।

শিলার গাঠনিক উপাদানকে মিনারেল বা খনিজ বলা হয়। খনিজ হচ্ছে প্রাকৃতিকভাবে সৃষ্ট অজৈব, কঠিন এবং এক বা একাধিক মৌলের সমন্বয়ে গঠিত বস্তু। খনিজের নির্দিষ্ট কেলাসের গঠন থাকে। শিলার সঙ্গে খনিজের মূল পার্থক্য হলো এক বা একাধিক খনিজ মিলে একটি শিলা গঠিত হয় এবং খনিজের নির্দিষ্ট রাসায়নিক গঠন রয়েছে যা সাধারণত শিলায় নেই।


বিজ্ঞান অনুসন্ধানী পাঠ ৭ম শ্রেণি অধ্যায় ১৪ সত্য/মিথ্যা নির্ণয়

১. ভূত্বক নানা প্রকার শিলা দ্বারা গঠিত।
২. ভূত্বক গঠনের প্রধান উপাদান পাললিক শিলা।
৩. গ্রানাইট হলো আগ্নেয় শিলা।
৪. আব্রাহাম লিংকনের ভাস্কর্য যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থিত।
৫. মৃত জীবের দেহবশেষ রূপান্তরিত শিলার উদাহরণ।

৬. পাললিক শিলাতে ফসিল পাওয়া যায়।
৭. খনিজ তেল, প্রাকৃতিক গ্যাস, কয়লা প্রভৃতি জ্বালানি পাওয়া যায় পাললিক শিলাতে।
৮. মাইকেল এঞ্জেলোর জগদ্বিখ্যাত ভাস্কর্য ‘ডেভিড’ তৈরি করা হয় আগ্নেয় শিলা দ্বারা।
৯. মার্বেল পাথর রূপান্তরিত শিলার উদাহরণ।
১০. রেলপথ নির্মাণে রেললাইনের নিচে ব্যবহার করা হয় মার্বেল পাথর।

১১. শিলার গাঠনিক উপাদানকে বলা হয় মিনারেল বা খনিজ।
১২. ভূত্বকে কার্বন এবং নাইট্রোজেন সবচেয়ে বেশি থাকে।
১৩. আগ্নেয় শিলা উৎপন্ন হয় গলিত লাভা বা ম্যাগমা থেকে।
১৪. আকরিকে মূল্যবান খনিজ পদার্থ থাকে না।
১৫. আকরিক থেকে বিভিন্ন ধাতু সংরক্ষণ করা যায় ।

উত্তর : ১. সত্য, ২. মিথ্যা, ৩. সত্য, ৪. সত্য, ৫. মিথ্যা, ৬. সত্য, ৭. সত্য, ৮. মিথ্যা, ৯. সত্য, ১০ মিথ্যা, ১১. সত্য, ১২. মিথ্যা, ১৩. সত্য, ১৪. মিথ্যা, ১৫. সত্য।


বিজ্ঞান অনুসন্ধানী পাঠ ৭ম শ্রেণি অধ্যায় ১৪ সংক্ষিপ্ত প্রশ্ন ও উত্তর

প্রশ্ন-১। আগ্নেয় শিলা কাকে বলে?
উত্তর: আগ্নেয়গিরির অগ্ন্যুৎপাতের ফলে নির্গত লাভা কিংবা ভূ- পৃষ্ঠের অভ্যন্তরস্থ গলিত ম্যাগমা ঠান্ডা ও শক্ত হয়ে যে শিলা গঠিত হয় তাকে আগ্নেয় শিলা বলে।

প্রশ্ন-২। পৃথিবীতে সবচেয়ে বেশি পরিমাণে পাওয়া যায় কোন শিলা?
উত্তর: পৃথিবীতে সবচেয়ে বেশি পরিমাণে পাওয়া যায় আগ্নেয় শিলা।

প্রশ্ন-৩। বহিরাগত শিলা কী?
উত্তর: পৃথিবী পৃষ্ঠে যে শিলা গঠিত হয় তাই বহিরাগত শিলা।

প্রশ্ন-৪। অনুপ্রবেশকারী শিলা কীভাবে গঠিত হয়?
উত্তর: ভূ-ত্বকের নিচে ম্যাগমা ধীরে ধীরে ঠান্ডা এবং কঠিন হয়ে অনুপ্রবেশকারী শিলা গঠন করে।

প্রশ্ন-৫। গ্রানাইট কী কাজে ব্যবহৃত হয়?
উত্তর: বড় ভবন এবং ভাস্কর্য তৈরিতে গ্রানাইট ব্যবহৃত হয়।

প্রশ্ন-৬। পাললিক শিলা কীভাবে সৃষ্টি হয়?
উত্তর: যান্ত্রিক, রাসায়নিক এবং জৈব উপায়ে পাললিক শিলা সৃষ্টি হয়।

প্রশ্ন-৭। পাললিক শিলা কাকে বলে?
উত্তর: লক্ষ লক্ষ বছর ধরে পলল জমাট বেঁধে যে শিলায় পরিণত হয় তাকে পাললিক শিলা বলে।

প্রশ্ন-৮। রূপান্তরিত শিলা কাকে বলে?
উত্তর: আগ্নেয় বা পাললিক শিলা রূপান্তর প্রক্রিয়ার মাধ্যমে যে শিলা গঠন করে তাকে রূপান্তরিত শিলা বলে।

প্রশ্ন-৯। আকরিক কী?
উত্তর: যে সকল শিলার মধ্যে অর্থনৈতিক মূল্য বিদ্যমান ও বিভিন্ন মূল্যবান খনিজ বিদ্যমান থাকে এবং সহজেই তা সংগ্রহ করা যায় তাই হলো আকরিক।

প্রশ্ন-১০। সবচেয়ে বেশি ব্যবহৃত রূপান্তরিত শিলা কোনটি?
উত্তর: সবচেয়ে বেশি ব্যবহৃত রূপান্তরিত শিলা কোয়ার্টজাইট এবং মার্বেল।


বিজ্ঞান অনুসন্ধানী পাঠ ৭ম শ্রেণি অধ্যায় ১৪ যোগ্যতাভিত্তিক প্রশ্ন ও উত্তর

প্রশ্ন-১। কোন শিলাতে জীবাশ্বের উপস্থিতি লক্ষ করা যায়?
উত্তর: বিভিন্ন ধরনের পলল জমাট বেঁধে যে শিলায় পরিণত হয়। তাকে পাললিক শিলা বলে। পাললিক শিলার পললের মধ্যে নুড়ি পাথর, বালু, কর্দম, মৃত জীবের দেহাবশেষ ইত্যাদি পাওয়া যায়। পাললিক শিলাতে জীবাশ্মের বা ফসিলের উপস্থিতি লক্ষ করা যায়। পাললিক শিলার কোন স্তরে ফসিল পাওয়া যায় তা দেখে বিজ্ঞানীরা ধারণা করেন যে, জীবাশ্ম প্রাণীটি কত পূর্বে পৃথিবীতে বিচরণ করত এবং কীভাবে প্রাণীটি বিবর্তিত হয়েছে।

পাললিক শিলা বিভিন্ন স্তরে গঠিত। কোনো স্তরে যদি কোনো প্রাণী আটকা পড়ে বা মৃতদেহ পড়ে থাকে তখন ঐ স্তরের উপর নতুন পলল পড়ে স্তর সৃষ্টি হয়। এভাবে দীর্ঘসময়ে অনেকগুলো স্তরের সমন্বয়ে পাললিক শিলা গঠিত হয়। পাললিক শিলার যে স্তরে প্রাণীর মৃতদেহ আটকা পড়েছিল তা জীবাশ্মে পরিণত হয় এবং দীর্ঘদিন ঐ জীবাশ্ব সংরক্ষিত থাকে।

প্রশ্ন-২। বিভিন্ন শিলা কীভাবে শনাক্ত করা যায় লিখ।
উত্তর: পৃথিবী বা ভূ-পৃষ্ঠের বাইরের শক্ত স্তরকে শিলা বলা হয়। ভূ-পৃষ্ঠ বিভিন্ন প্রকার শিলা দ্বারা গঠিত। এসকল শিলার উৎপত্তি, গঠন, কার্য ভিন্ন প্রকৃতির হয়ে থাকে। শিলাসমূহকে পৃথক পৃথক ভাবে শনাক্ত করা যায় । বিভিন্ন শিলা কীভাবে শনাক্ত করা যায় তা নিচে লিখা হলো-

  • বিভিন্ন খনিজ কেলাসের উপস্থিতি ও অনুপস্থিতি দেখে আগ্নেয় শিলা শনাক্ত করা যায়।
  • বিভিন্ন স্তরের উপর ভিত্তি করে পাললিক শিলা শনাক্ত করা যায়।
  • ফলিয়েশন নামক স্তর বা ব্যান্ড দেখে রূপান্তরিত শিলা শনাক্ত করা যায়।

প্রশ্ন-৪। পৃথিবীর সবচেয়ে বাইরের এবং উপরের পৃষ্ঠ ভূ-ত্বক নামে পরিচিত। নানা প্রকার শিলা দ্বারা এই ভূ-ত্বক গঠিত। এদের গঠন ও ব্যবহার ভিন্ন ভিন্ন। ভূ-ত্বক এবং শিলা সম্পর্কিত নিচের প্রশ্নগুলোর উত্তর দাও।
ক. শিলা কত প্রকার এবং কী কী?
খ. পৃথিবীতে সবচেয়ে বেশি পরিমাণে পাওয়া যায় কোন শিলা?
গ. বড় ভবন এবং ভাস্কর্য তৈরিতে কোনটি ব্যবহার করা হয়?
ঘ. জৈব উপায়ে সৃষ্টি হওয়া দুটি পাললিক শিলার উদাহরণ দাও।
ঙ. রূপান্তরিত শিলার গঠন প্রক্রিয়াকে কীসের সাথে তুলনা করা যেতে পারে?

উত্তর:
ক. তিন প্রকার, যথা— আগ্নেয়, পাললিক, রূপান্তরিত শিলা।
খ. আগ্নেয় শিলা।
গ. গ্রানাইট।
ঘ. কয়লা, চুনাপাথর।
ঙ. মাটির পাত্রের গঠনের সাথে।

প্রশ্ন-৫। ভৌত ও রাসায়নিক ধর্মের ভিত্তিতে শিলার ধরন শনাক্তরকণ করা হয়। পাঠ্যবইয়ের বিভিন্ন ধরনের শিলা অধ্যায়টি পড়ে নিচের প্রশ্নগুলোর উত্তর দাও।
ক. অভ্যন্তরীণ আগ্নেয় শিলার গঠন কেমন?
খ. বহিঃস্থ আগ্নেয় শিলার’ কোসের আকার কীরূপ?
গ. পাললিক শিলা আমাদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ কেন?
ঘ. পাললিক শিলায় কোনটি উপস্থিতি থাকতে পারে?
ঙ. রূপান্তরিত শিলার ক্ষেত্রে কী দেখা যায়?

উত্তর:
ক. অত্যন্ত শক্ত এবং বিভিন্ন খনিজের কেলাস দ্বারা গঠিত।
খ. অতিক্ষুদ্র।
গ. পাললিক শিলাতে খনিজ তেল, প্রাকৃতিক গ্যাস, কয়লা প্রভৃতি জ্বালানি পাওয়া যায়। তাই পাললিক শিলা আমাদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ।
ঘ. ফসিল বা জীবাশ্ম
ঙ. ফলিয়েশন বা ব্যান্ড।


🔰🔰 আরও দেখুন: বিজ্ঞান অনুসন্ধানী পাঠ ৭ম শ্রেণি ৩য় অধ্যায় প্রশ্ন ও উত্তর
🔰🔰 আরও দেখুন: বিজ্ঞান অনুসন্ধানী পাঠ ৭ম শ্রেণি ৪র্থ অধ্যায় প্রশ্ন ও উত্তর
🔰🔰 আরও দেখুন: বিজ্ঞান অনুসন্ধানী পাঠ ৭ম শ্রেণি ৫ম অধ্যায় প্রশ্ন ও উত্তর
🔰🔰 আরও দেখুন: বিজ্ঞান অনুসন্ধানী পাঠ ৭ম শ্রেণি ৬ষ্ঠ অধ্যায় প্রশ্ন ও উত্তর
🔰🔰 আরও দেখুন: বিজ্ঞান অনুসন্ধানী পাঠ ৭ম শ্রেণি ৭ম অধ্যায় প্রশ্ন ও উত্তর

🔰🔰 আরও দেখুন: বিজ্ঞান অনুসন্ধানী পাঠ ৭ম শ্রেণি ৮ম অধ্যায় প্রশ্ন ও উত্তর
🔰🔰 আরও দেখুন: বিজ্ঞান অনুসন্ধানী পাঠ ৭ম শ্রেণি ৯ম অধ্যায় প্রশ্ন ও উত্তর
🔰🔰 আরও দেখুন: বিজ্ঞান অনুসন্ধানী পাঠ ৭ম শ্রেণি ১০ম অধ্যায় প্রশ্ন ও উত্তর
🔰🔰 আরও দেখুন: বিজ্ঞান অনুসন্ধানী পাঠ ৭ম শ্রেণি অধ্যায় ১১ প্রশ্ন ও উত্তর
🔰🔰 আরও দেখুন: বিজ্ঞান অনুসন্ধানী পাঠ ৭ম শ্রেণি অধ্যায় ১২ প্রশ্ন ও উত্তর
🔰🔰 আরও দেখুন: বিজ্ঞান অনুসন্ধানী পাঠ ৭ম শ্রেণি অধ্যায় ১৩ প্রশ্ন ও উত্তর


আশাকরি “বিজ্ঞান অনুসন্ধানী পাঠ ৭ম শ্রেণি অধ্যায় ১৪ প্রশ্ন ও উত্তর” আর্টিকেল টি আপনাদের ভালো লেগেছে। আমাদের কোন আপডেট মিস না করতে ফলো করতে পারেন আমাদের ফেসবুক পেজ ও সাবক্রাইব করতে পারেন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল।