|

বিজ্ঞান অনুসন্ধানী পাঠ ৭ম শ্রেণি ১ম অধ্যায় প্রশ্ন ও উত্তর

বিজ্ঞান অনুসন্ধানী পাঠ ৭ম শ্রেণি ১ম অধ্যায়: জীববৈচিত্র্য বা Biodiversity শব্দ দ্বারা পৃথিবীতে জীবনের বিপুল বৈচিত্র্য বর্ণনা করা হয়। জীববৈচিত্র্য বলতে উদ্ভিদ, প্রাণী, অণুজীবসহ সকল জীবের মধ্যে বিদ্যমান বৈচিত্র্যকে বুঝায়। বিশ্বজুড়ে কতটা জীববৈচিত্র্য রয়েছে তা নিয়ে জানতে বিজ্ঞানীদের আগ্রহ সীমাহীন, কারণ, এখনও সেগুলোর অনেক জীববৈচিত্র্য আবিষ্কার করা বাকি আছে। পৃথিবীতে ভিন্ন ভিন্ন অঞ্চলে ভিন্ন ভিন্ন জীব ঐ অঞ্চলের পরিবেশ অনুযায়ী অভিযোজিত হয়। অঞ্চলভিত্তিক এই জীবগোষ্ঠী এবং তার পরিবেশের জড় উপাদান মিলে যে সিস্টেম তৈরি হয়, তাকে বলা হয় ইকোসিস্টেম বা বাস্তুতন্ত্র।

পৃথিবীর সমস্ত প্রজাতি বেঁচে থাকার জন্য এবং সেগুলোর বাস্তুতন্ত্রের ভারসাম্য বজায় রাখার জন্য একসঙ্গে কাজ করে। জীববৈচিত্র্য পরিমাপের একটি সাধারণ উপায় হলো একটি নির্দিষ্ট এলাকার মধ্যে বসবাসকারী প্রজাতির মোট সংখ্যা গণনা করা। নাতিশীতোষ্ণ অঞ্চল, যেখানে উষ্ণ গ্রীষ্ম এবং ঠান্ডা শীত থাকে, সেখানে জীববৈচিত্র্য কম থাকে। পাহাড়ের চূড়া এবং মরুভূমির মতো শুষ্ক অঞ্চলগুলোতে জীববৈচিত্র্য আরো কম। সাধারণত, বিষুব রেখার যত কাছাকাছি অঞ্চল, জীববৈচিত্র্য তত বেশি। জীববৈচিত্র্য পরিমাপের আরেকটি উপায় হলো জেনেটিক বৈচিত্র্য। জীববৈচিত্র্য সংরক্ষণ এবং একই বিপন্ন প্রজাতি এবং সেগুলোর আবাসস্থল রক্ষা করার জন্য আমাদের সম্মিলিত প্রচেষ্টা প্রয়োজন।


বিজ্ঞান অনুসন্ধানী পাঠ ৭ম শ্রেণি ১ম অধ্যায়

শূন্যস্থান পূরণ কর

১. — শব্দ দ্বারা পৃথিবীতে জীবনের বিপুল বৈচিত্র্য বর্ণনা করা হয়।
২. দীর্ঘ সময় ধরে জীবের মধ্যে পরিবর্তন ঘটার যে প্রক্রিয়া তাকে বলা হয় ____।
৩. যেকোনো প্রাণী তার জীবদ্দশায় নিজের ____ তার প্রজাতিকে বাঁচিয়ে রাখে।

৪. স্থানীয় প্রজাতির উচ্চ সংখ্যার অঞ্চলগুলোকে জীববৈচিত্র্যের ____ বলা হয়।
৫. সবচেয়ে বেশি জীববৈচিত্র্য রয়েছে ____ অঞ্চলে।
৬. দক্ষিণ আমেরিকার আমাজন রেইন ফরেস্টে অন্তত ____ বিভিন্ন উদ্ভিদের প্রজাতি বাস করে।

৭. জীববৈচিত্র্য পরিমাপের একটি উপায় হলো ____।
৮. মানুষের জিনের সংখ্যা প্রায় ____।
৯. একটি গোলাপকে গোলাপ এবং একটি কুকুরকে কুকুর হিসেবে নির্ধারণ করে ____।

১০. সিন্দু-গঙ্খা সমতল ভূমি হলো একটি বিরাট উর্বর ____ অঞ্চল।
১১. চট্টগ্রামের বনাঞ্চলে প্রায় ____ টি উদ্ভিদ প্রজাতি আছে।
১২. বাংলাদেশে এখন পর্যন্ত ____ প্রজাতির পাখি আছে।

১৩. IUCN-এর তথ্যমতে বাংলাদেশে ___ টি প্রজাতির বন্যপ্রাণির অস্তিত্ব হুমকির সম্মুখীন।
১৪. বন বিজ্ঞানীদের মতে, বাংলাদেশে ___ টির মত বৃক্ষপ্রজাতি বিপন্ন প্রায় ।
১৫. প্রজাতির বৃহত্তর ____ গাছপালা ও প্রাণিদের রোগ প্রতিরোধ করে তুলতে পারে।

উত্তর: ১. জীববৈচিত্র্য; ২. বিবর্তন; ৩. প্রতিরূপ; ৪. হট-স্পট; ৫. গ্রীষ্মমণ্ডলীয়; ৬. ৪০,০০০; ৭. জেনেটিক বৈচিত্র্য; ৮. ২৫,০০০; ৯. জিন; ১০. সমভূমি; ১১. ২,২৬০; ১২. ৫৭৮; ১৩, ২৩; ১৪, ১২৫; ১৫. জেনেটিক বৈচিত্র্য।


সত্য/মিথ্যা বাক্যটি নির্ণয়করণ

১. বাস্তুতন্ত্রকে ‘বায়োম’ বলা হয়।
২. এখন পর্যন্ত শনাক্তকারী প্রজাতির সংখ্যা ১৫ লক্ষ।
৩. স্থানীয় প্রজাতির উচ্চ সংখ্যার অঞ্চলগুলোকে জীব বৈচিত্র্যের হটস্পট বলা হয়।

৪. দক্ষিণ আফ্রিকার কেপ ফ্লোরিস্টিক অঞ্চলে প্রায় ৬০০০ উদ্ভিদ প্রজাতি রয়েছে।
৫. নাতিশীতোষ্ণ অঞ্চলে জীববৈচিত্র্য কম থাকে।
৬. দক্ষিণ আমেরিকার আমাজন রেইন ফরেস্টে অন্তত ৪০,০০০ বিভিন্ন উদ্ভিদের প্রজাতি বাস করে।

৭. মানুষের জিনের সংখ্যা প্রায় ২৫,০০০।
৮. বাংলাদেশে এখন পর্যন্ত ১৯ প্রজাতির উভচর জীব শনাক্ত করা হয়েছে।
৯. চট্টগ্রাম বনাঞ্চলে ২৫০০টি উদ্ভিদ প্রজাতি রয়েছে।

১০. IUCN এর তথ্য মতে বাংলাদেশের ২৩টি প্রজাতির বন্যপ্রাণীর অস্তিত্ব হুমকির সম্মুখীন।
১১. দেশের প্রায় ১০টি বন্যপ্রাণীর অস্তিত্ব বিপন্ন।
১২. বাংলাদেশের প্রায় ৩৯ প্রজাতির প্রাণী হুমকির সম্মুখীন।

১৩. জীববৈচিত্র্য বলতে উদ্ভিদের মধ্যে বিদ্যমান বৈচিত্র্যকে বুঝায়।
১৪. জীববৈচিত্র্য শব্দ দ্বারা পৃথিবীতে জীবনের বিপুল বৈচিত্র্য বর্ণনা করা হয়।
১৫. জীবের এক প্রজন্ম থেকে অন্য প্রজন্মে যাওয়ার কোনো পরিবর্তন ঘটে না।

উত্তর: ১. সত্য, ২. মিথ্যা, ৩. সত্য, ৪. মিথ্যা, ৫. সত্য, ৬. সত্য, ৭. সত্য, ৮. সত্য, ৯. মিথ্যা, ১০. সত্য, ১১. মিথ্যা, ১২. সত্য, ১৩. মিথ্যা, ১৪. সত্য, ১৫. মিথ্যা।


বিজ্ঞান অনুসন্ধানী পাঠ ৭ম শ্রেণি ১ম অধ্যায় সংক্ষিপ্ত প্রশ্ন ও উত্তর

প্রশ্ন-১। জীববৈচিত্র্য কী?
উত্তর: উদ্ভিদ, প্রাণী, অণুজীবসহ সকল জীবের মধ্যে বিদ্যমান বৈচিত্র্যকে জীববৈচিত্র্য বলে।

প্রশ্ন-২। পৃথিবীতে কত সংখ্যক ভিন্ন ভিন্ন জীব আছে?
উত্তর: পৃথিবীতে আনুমানিক ৮-১৪ মিলিয়ন (৮০ থেকে ১৪০ লক্ষ) জীব রয়েছে। প্রশ্ন-৩. এ পর্যন্ত কত প্রজাতির জীব শনাক্ত করা সম্ভব হয়েছে? উত্তর: এ পর্যন্ত প্রায় ১.২ মিলিয়ন (১২ লক্ষ) প্রজাতির জীব শনাক্ত করা সম্ভব হয়েছে।

প্রশ্ন-৪। অভিযোজন কাকে বলে?
উত্তর: একটি জীব তার পরিবেশের সঙ্গে খাপ খাওয়ানোর জন্য যেসব কৌশল ও পদ্ধতি অনুসরণ করে তাকে বলা হয় অভিযোজন।

প্রশ্ন-৫। বিবর্তন কাকে বলে?
উত্তর: নির্দিষ্ট কোনো কারণ ছাড়া জীবের এক প্রজন্ম থেকে পরের প্রজন্মে যাবার সময় কিছু পরিবর্তন ঘটে। দীর্ঘসময় ধরে জীবের মধ্যে পরিবর্তন ঘটার যে প্রক্রিয়া, তাকে বলা হয় বিবর্তন।

প্রশ্ন-৬। বাস্তুতন্ত্র বা Ecosystem বলতে কী বোঝ?
উত্তর: পৃথিবীর ভিন্ন ভিন্ন অঞ্চলে ভিন্ন ভিন্ন জীব ওই অঞ্চলের পরিবেশ অনুযায়ী অভিযোজিত হয়। অঞ্চল ভিত্তিক এই জীব গোষ্ঠী এবং তার পরিবেশের জড় উপাদান মিলে যে সিস্টেম তৈরি হয় তাকে বলা হয় বাস্তুতন্ত্র বা Ecosystem. এই বাস্তুভ ত্রকে “বায়োম”ও বলা হয়ে থাকে।

প্রশ্ন-৭। জীববৈচিত্র্য পরিমাপের সাধারণ উপায় কোনটি?
উত্তর: জীববৈচিত্র্য পরিমাপের একটি সাধারণ উপায় হলো একটি নির্দিষ্ট এলাকার মধ্যে বসবাসকারী প্রজাতির মোট সংখ্যা গণনা করা।

প্রশ্ন-৮। বাংলাদেশে নানা ধরনের প্রাণী ও জীবজগতের অভয়ারণ্যের মূল কারণ কী?
উত্তর: বাংলাদেশে নানা ধরনের প্রাণী ও জীবজগতের অভয়ারণ্যের মূল কারণ হলো নাতিশীতোষ্ণ আবহাওয়া ও জলবায়ু, উর্বর মাটি, বিষুবরেখার কাছাকাছি অবস্থানের কারণে পর্যাপ্ত সূর্যালোক, অধিক বৃষ্টিপাত, সবুজ প্রকৃতি ইত্যাদি।

প্রশ্ন-৯। চট্টগ্রামের বনাঞ্চলে কত প্রজাতির উদ্ভিদ রয়েছে?
উত্তর: চট্টগ্রামের বনাঞ্চলে প্রায় ২,২৬০টি উদ্ভিদ প্রজাতি রয়েছে।

প্রশ্ন-১০। সিন্ধু-গঙ্গা সমতল ভূমির অবস্থান কোথায়?
উত্তর: সিন্ধু-গঙ্গা সমতল ভূমি  যা পাকিস্তানের একটি অংশ উত্তর পূর্ব ভারতের অধিকাংশ এবং সম্পূর্ণ বাংলাদেশ জুড়ে অবস্থিত।

প্রশ্ন-১১। সিন্ধু-গঙ্গা সমতল ভূমির নামকরণ করা হয়েছে কীসের ভিত্তিতে?
উত্তর: সিন্ধু-গঙ্গা সমতল ভূমির নামকরণ করা হয়েছে সিন্ধু নদ ও গঙ্গা নদীর নামে।

প্রশ্ন-১২। IUCN এর তথ্যমতে, বাংলাদেশের কতটি প্রজাতির বন্যপ্রাণীর অস্তিত্ব হুমকির সম্মুখীন?
উত্তর: IUCN এর তথ্যমতে, বাংলাদেশের ২৩টি প্রজাতির বন্যপ্রাণী হুমকির সম্মুখীন।

প্রশ্ন-১৩। IUCN এর তথ্যমতে বাংলাদেশের কতটি প্রজাতির বন্যপ্রাণীর অস্তিত্ব বিপন্ন?
উত্তর: IUCN এর তথ্যমতে বাংলাদেশের ২৯টি প্রজাতির বন্যপ্রাণীর অস্তিত্ব বিপন্ন।

প্রশ্ন-১৪ । বনবিজ্ঞানীদের মতে, বাংলাদেশের কত প্রজাতির বৃক্ষ বিপন্ন প্রায়?
উত্তর: বনবিজ্ঞানীদের মতে, বাংলাদেশের প্রায় ১২৫টি প্রজাতির বৃক্ষ বিপন্ন প্ৰায়৷


আরও দেখুন: ৭ম শ্রেণির বিজ্ঞান ১ম অধ্যায় ২০২৩

আশাকরি “বিজ্ঞান অনুসন্ধানী পাঠ ৭ম শ্রেণি ১ম অধ্যায় প্রশ্ন ও উত্তর” আর্টিকেল টি আপনাদের ভালো লেগেছে। আমাদের কোন আপডেট মিস না করতে ফলো করতে পারেন আমাদের ফেসবুক পেজ ও সাবক্রাইব করতে পারেন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল।